শ্রীপুরের স্কুল গুলোতে করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা মানসম্মত করার দাবি অভিভাবকদের

শ্রীপুরের স্কুল গুলোতে করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা মানসম্মত করার দাবি অভিভাবকদের

মনিরুল ইসলাম মেরাজ, গাজীপুর থেকে :
 
গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের স্কুল গুলোতে করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা মানসম্মত করার দাবি অভিভাবকদের। চলমান করোনা ভাইরাস মহামারীর কারনে দেশের সকল শিক্ষা প্রতাষ্ঠান প্রায় চার মাস ধরে বন্ধ থাকায় সকল ক্লাস পরীক্ষাও বন্ধ রয়েছে। এমন অবস্থায় শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে অনলাইন পাঠদান ও টিভি চ্যানেলে নিয়মিত ক্লাস নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় শ্রীপুরের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে অনলাইন ক্লাস চালানো হয়।
পরবর্তীতে ঢাকার বিভিন্ন স্কুলকে অনুসরন করে শ্রীপুরের স্কুলগুলোতে পরীক্ষা নিচ্ছে দুই ভাবে – অনলাইনে প্রশ্ন দিয়ে, বাড়িতে প্রশ্ন পাঠিয়ে দিয়ে।
 
 
প্রথম প্রদ্ধতিতে, অনলাইনে পরীক্ষার সময় স্যার উপস্থিত থাকে তাই সেখানে বেশি একটা নকল করা যায় না। নকল করা যায় না এটা বলাটা ঠিক হবে না, করা যায় তবে কম। তবে ২য় প্রদ্ধতিতে, বাড়িতে প্রশ্ন পাঠিয়ে দিয়ে অবিভাবকদের বলা হয় আপনারা উপস্থিত থেকে পরীক্ষা নিবেন আর পরে আমাদের কাছে খাতা জমা দিবেন। এমন পরীক্ষা ব্যবস্থার যৌক্তিকতা নেই বলে মনে করেন নিতীনির্ধারকরা। দ্বিতীয় পদ্ধতিটা হচ্ছে, শেয়ালের কাছে মুরগী বর্গা দেওয়ার মতো। কারণ, এই প্রদ্ধতিতে সকল ছাত্রছাত্রীরা বই খুলে দেখে দেখে লেখার সুযোগ থেকে যাচ্ছে। আবার ফলাফল প্রকাশের সময় পরীক্ষার্থীদের মাঝে যার হাতের লেখা সুন্দর হবে তাকেই প্রথম হিসেবে বিবেচনা করা হয় বলে অভিযোগ অভিবাবকদের। এখানে মেধা যাচাই করা হচ্ছে নাকি হাতের লেখা সুন্দরের প্রতিযোগিতা হচ্ছে সেটা নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে।
 
বর্তমানে শ্রীপুরে বিভিন্ন স্কুলে দ্বিতীয় পদ্ধতি অনুসরণ করে পরীক্ষা নেওয়ায় শিক্ষার্থীদের মেধা যাচাই বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বলে মনে অভিভাবকরা। তাই চলমান এই শিক্ষা ব্যবস্থা পরিবর্তন করে মানসম্মত পদ্ধতিতে শিক্ষা কার্যক্রম চালুর দাবি জানান অভিবাবক ও বিশেষজ্ঞরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536