ঝালকাঠিতে প্রথম স্ত্রীর যৌতুক মামলায় ইউপি সদস্য কারাগারে

ঝালকাঠিতে প্রথম স্ত্রীর যৌতুক মামলায় ইউপি সদস্য কারাগারে

কামরুল হাসান মুরাদ , রাজাপুর থেকে :

ঝালকাঠিতে প্রথম স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় কাঠালিয়া উপজেলার শৌলজালিয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ও চিংরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ছগীর হোসেন কে জেল হাজতে প্রেরন করেছে আদালত। বুধবার (১৮ নভেম্বর) ঝালকাঠির বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট (কাঠালিয়া) আদালতের বিজ্ঞ বিচারক ছানিয়া আক্তার মোঃ ছগীর হোসেন কে জেল হাজতে প্রেরন করেন।

এ বিষয় মামলার বাদী সূত্রে জানাযায়, ২০০৪ সালে পারিবারিক ভাবে চিংরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তৎকালীন সহকারী শিক্ষক মোঃ ছগীর হোসেনের সাথে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা জেসমিন আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তার স্বামীর প্রমোশন নিয়ে (প্রধান শিক্ষক) হতে ও ইউপি সদস্য নির্বাচনের জন্য স্ত্রী জেসমিন স্বামীকে কয়েক লাখ টাকা দেয়। পরবর্তী সময় শিক্ষক ও ইউপি সদস্য স্বামী ছগীর ২০১৭সালে প্রথম স্ত্রী জেসমিনের অজান্তে কাঠালিয়া সরকারী কলেজের ক্লার্ক উ:আউরা গ্রাম নিবাসী শাহ জালালা আকনের স্ত্রী ও জমাদ্দারহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা দুই সন্তানের জননী মাসুমা আক্তারকে গোপনে বিয়ে করে।

লোকমুখে বিষয়টি প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তারের কানে পৌছলে তিনি স্বামীর কাছে বিষয়টি জানতে চায় ও নিজেও খোজ খবর নিয়ে ঘটনার সত্যতা পায়। এ নিয়ে স্বামী ছগীর হোসেন প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তারের কাছে দু’লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে ও যৌতুক দিলে সে দ্বিতীয় স্ত্রীকে তালাক দিয়ে প্রথম স্ত্রীর সাথে সংসার করবে বলে শর্ত দেয়। এ অবস্থায় প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তার নিরুপায় হয়ে স্বামী মোঃ ছগীর হোসেনের বিরুদ্ধে যৌতুক মামলা দায়ের করে।

স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় স্বামী ছগির জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে প্রেরনের আদেশ প্রদান করেন। বাদী পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী মোঃ নাসির উদ্দিন কবির, এড. মুঃশামীম আলম ও এড.মানিক আচার্য এবং আসামী পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী আঃরশিদ সিকদার মামলাটি পরিচালনা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536